For the best experience, open
https://m.kolkata24x7.in
on your mobile browser.
Advertisement

বিরাট বিপদে তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ, নতুন মামলা করল CBI

01:48 PM Jun 15, 2024 IST | Sankhajit Biswas
বিরাট বিপদে তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ  নতুন মামলা করল cbi
Advertisement

লোকসভা ভোট মিটতেই তৎপর সিবিআই (CBI)। এবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার র‍্যাডারে প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ কেডি সিং। তাঁর বিরুদ্ধে নতুন মামলা করা হয়েছে। কেডি সিং-এর সংস্থা অ্যালকেমিস্টের বিরুদ্ধে বাজার থেকে বেআইনিভাবে কোটি-কোটি টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে। সেই সংক্রান্ত বিষয়েই একটি নতুন মামলা রুজু হয়েছে বলে সিবিআই সূত্রে খবর।

Advertisement
   

২০২১ সালে কেডি সিংকে গ্রেফতারও করেছিল ইডি। তাঁর সংস্থা অ্যালকেমিস্টের বিরুদ্ধে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ ওঠে। সেই সংক্রান্ত মামলার প্রেক্ষিতেই কেডিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। তবে দল থেকে তাঁকে আগেই বহিস্কার করা হয়েছিল।

Advertisement

কেডি সিংয়ের সংস্থা অ্যালকেমিস্ট দেশের একাধিক রাজ্য থেকে কোটি কোটি টাকা তুলেছিল বলে অভিযোগ। কেডি সিং-এর সংস্থার বিরুদ্ধে শুধু এ রাজ্যে নয়, পড়শি রাজ্য ওড়িশা, ঝাড়খণ্ডে এবং উত্তর প্রদেশেও মামলা চলছে। তদন্ত করছে সিবিআই। উত্তর প্রদেশের একটি মামলার সূত্রেই কেডিকে তলব করা হয়েছে।

তিন আসনে বিরাট মার্জিনে এগিয়ে বিজেপি, উপনির্বাচন নিয়ে চিন্তার ভাঁজ তৃণমূলের কপালে!

২০১০ সালে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা কেডি সিংকে রাজ্যসভায় পাঠিয়েছিল। তার কয়েক মাসের মধ্যে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। যেহেতু তিনি রাজ্যসভায় ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার একমাত্র প্রতিনিধি ছিলেন, তাই তাঁর বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর হয়নি। কয়েক মাসের মধ্যে তৃণমূল কেডিকে উত্তর ভারতের একাধিক রাজ্যের দায়িত্ব দেয়।

ইডি সূত্রে খবর, অ্যালকেমিস্টের বিভিন্ন রকমের ব্যবসা ছিল। আবাসন, পরিকাঠামো, পোলট্রি, ফার্মা, স্বাস্থ্য পরিষেবা থেকে শুরু করে চা-বাগান সমস্ত জায়গাতেই বিনিয়োগ ছিল সংস্থার। কিন্তু মুনাফার আসল উৎস ছিল বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার কারবার। ২০১৫ সালের আগে পর্যন্ত অ্যালকেমিস্ট গোষ্ঠীর বিভিন্ন সংস্থা আমজনতার কাছ থেকে ১,৯১৬ কোটি টাকা তোলে।

উপনির্বাচনের আগেই তৃণমূলের কাছে ‘হেরে ভূত’ বিজেপি!

কেডি সিংয়ের বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে নারদা স্টিং অপারেশন করানোর অভিযোগ একাধিকবার তুলেছিলেন রাজ্য বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর দাবি ছিল, এটি দুর্নীতি ছিল না, এটি ছিল ষড়যন্ত্র। কনস্পিরেসি মেড বাই ভাইপো।

শুভেন্দুর অভিযোগ ছিল, যাদের (ভাইপো) সহ্য করতে পারত না, যাদের মনে করত আগামী দিনে এরা বাধা হতে পারে, তাদের বিরুদ্ধেই ম্যাথুকে কেডি সিং-এর মাধ্যমে ব্যবহার করা হয়েছিল। ৬৫ লাখ টাকার বিনিময়ে, ১৩ জনকে টার্গেট করা হয়েছিল। এছাড়া শুভেন্দুর বিরুদ্ধে কিছু করতে পারবে না।

টিকিটের দরকার নেই, ভারতে একমাত্র এই ট্রেনেই যাত্রীদের যাতায়াত পুরোপুরি ফ্রি

Advertisement
Tags :
Advertisement

.